Rupchorcha

হাত ও পায়ের পাতা হোক মসৃণ

আসছে শীত। হাত ও পায়ের পাতায় লেগেছে টান। হচ্ছে খসখসে। অনেকের আছে হাত ও পায়ের পাতা ফাটার সমস্যা।

শীতকালে হাত ও পায়ের পাতা মসৃণ রাখতে ঋতু উপযোগী ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। অন্য সময় মাসে একবার পেডিকিউর-ম্যানিকিউর করালেও এ সময়ে মাসে দুইবার, অর্থাৎ প্রতি ১৫ দিনে একবার করলে ভালো। পার্লারে শীতের জন্য বিশেষ পেডিকিউর-ম্যানিকিউর করানো হয়। পাশাপাশি প্রতিদিন হাত ও পায়ের পাতায় ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত। দিনে দুইবার ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা যেতে পারে—গোসলের পর ও রাতে ঘুমানোর আগে। গোসলের ঠিক পরপর শরীর ভেজা ভেজা থাকতেই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা ভালো। এ ছাড়া বাজারে হাত-পায়ের পাতা ফাটা রোধের জন্য বিশেষ ক্র্যাক রিমুভিং ক্রিম পাওয়া যায়। যাঁদের সমস্যা বেশি, তাঁরা ময়েশ্চারাইজারের পাশাপাশি এই ক্রিমও ব্যবহার করতে পারেন। রাতে ময়েশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহারের পর পরতে পারেন মোজা। মোজা সারা রাত পায়ে ময়েশ্চারাইজ আটকে রাখবে। ফলে উপকার পাওয়া যাবে বেশি।

হাতে ব্যবহারের জন্য প্যাক

হাতে ব্যবহারের জন্য প্যাক বানাতে পারেন টক দই দিয়ে। যাঁদের ত্বক মোটা, তারা টক দইয়ের সঙ্গে আইসিং সুগার মিশিয়ে প্যাক বানাতে পারেন। আর পাতলা ত্বকের জন্য টক দইয়ের সঙ্গে ওটস মিশিয়ে প্যাক বানাতে হবে। এই প্যাক গোসলের পর ব্যবহার করতে হবে। ব্যবহারের পর হাত ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। দিনের বেলা ব্যবহারের জন্য অবশ্যই সান প্রটেক্ট করে এমন ময়েশ্চারাইজার বেছে নিতে হবে। হাতের জন্য বানানো হলেও এই প্যাক ব্যবহার করা যাবে পায়ের পাতায়ও।

পায়ে ব্যবহারের প্যাক

একটা বোলের মধ্যে গরম পানি নিয়ে তার সঙ্গে গ্লিসারিন ও শ্যাম্পু মিশিয়ে নিতে হবে। রাতে ঘুমানোর আগে এটি বানিয়ে কিছুক্ষণের জন্য তাতে দুই পায়ের পাতা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর ক্রিম ও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এতে বেশ উপকার পাওয়া যাবে। শীতকালে হাত ও পায়ের পাতা মসৃণ রাখতে এই প্যাকগুলো বেশ উপকারে আসবে।

তবে যাঁরা পার্লারে গিয়ে পেডিকিউর-ম্যানিকিউর করেন, তাঁদের আর বাসায় বিশেষ কিছু করার দরকার নেই। কারণ শীতের জন্য বিশেষ পেডিকিউর-ম্যানিকিউর এমনিতেই হাত ও পায়ের পাতা মসৃণ রাখার জন্য যথেষ্ট সহায়ক হয়।

সুস্থ থাকুন, সুন্দর থাকুন
ভ্যালেন্টিনার সাথেই থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *